Cowash এর ABCD

কো ওয়াশ আমাদের দেশে এখনো পপুলার কনসেপ্ট না। Conditioner wash= Co wash. কো-ওয়াশ মানে হচ্ছে শ্যাম্পুর পরিবর্তে কন্ডিশনার দিয়ে চুল ওয়াশ করা। বেশ কিছু মিথ প্রচলিত আছে আমাদের- যেমন কন্ডিশনার স্কাল্পে লাগানো যাবেনা। জিনিসটা একই সাথে ভুল এবং ঠিক। কিছু কন্ডিশনার স্কাল্পে দেয়া যাবে, কিছু না দেয়া ভাল।

কোনগুলা scalp এ দেয়া যাবে?
– যেগুলাতে water insoluble সিলিকন নাই। এর মানে কি? মানে হচ্ছে এমন সিলিকন যাতে না থাকে যেটা নর্মাল পানি দিয়া ধুলে চলে যাবেনা। এটা যারা CGM follow করতে চান তাঁদের জন্য।

যদিও কো ওয়াশ CGM follower দের মাঝেই পপুলার, যারা CGM follow করছেন না তাঁরাও কো ওয়াশ করতে পারেন।

লাভ কি কন্ডিশনার দিয়ে চুল ধুয়ে?
– সাধারণ শ্যাম্পুর ক্লিনজিং এজেন্ট বেশ হার্শ। প্রতিদিনের ওয়াশের জন্য মাইল্ড ফর্মুলা ব্যবহার করা ভাল। এতে চুলের এবং scalp এর ন্যাচারাল অয়েল ব্যালেন্স বজায় থাকে।  কন্ডিশনার গুলোতে mild cleansing agents থাকে এবং একই সাথে moisturizing ingredients থাকে যা চুলকে soft & supple রাখতে সাহায্য করে।

সিলিকন ওয়ালা কন্ডিশনার দিয়ে কো ওয়াশ করলে হবে?

এই প্রসেসটা আসলে কোন বেদবাক্য নয়। সিলিকন ওয়ালা গুলা দিয়ে কো ওয়াশ করলে মানা নাই, not recommended though. সিলিকন চুলে বিল্ডাপ তৈরী করে। এই বিল্ডাপ ক্লিন করতে আপনাকে এমন শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুতে হবে যেগুলোতে সালফেট আছে। বেশিরভাগ শ্যাম্পুতেই থাকে। Silicones can’t be washed off without sufates.

সিলিকন আছে কিনা কীভাবে বুঝব?
– বোতলের পিছনের লেবেলে দেয়া ইনগ্রেডিয়েন্ট লিস্ট দেখে। সিলিকন গুলার নাম সাধারণন ‘-cone’ ‘-conol’ দিয়ে শেষ হয়। যেমন dimethicone, dimethiconol.

কন্ডিশনার দিয়ে আবার চুল ক্লিন হবে কীভাবে?
– হবে। কারণ কো ওয়াশ কন্ডিশনারে ক্লিনজিং এজেন্টও থাকে

কাদের জন্য স্যুটেবল?
– ড্রাই চুল কিন্তু আবার প্রতিদিন শ্যাম্পু না করলে ভাল লাগেনা। আবার শ্যাম্পু করলেও চুল আরো বেশি ড্রাই লাগে। যাঁদের স্কাল্প দ্রুত ড্রাই হয়ে যায়। যারা curly girl method ফলো করতে চান, তাঁদের জন্য এক্সেলেন্ট অপশন।

অয়েলি চুলে কো ওয়াশ করা যাবে?
– যাবে। কারো জন্যই মানা নাই। করে দেখেন, ভাল লাগলে কন্টিনিউ করবেন!

বাচ্চাদের চুলে করা যাবে?

– যে কোন বয়সের ছেলে, মেয়ে সবার চুলেই করা যাবে।

কন্ডিশনার দিয়ে চুল ধুব কেম্নে?
– নর্মাল shampoo দিয়ে যেভাবে চুল ওয়াশ করেন, ওভাবেই।

তেল যাবে?
– সাধারণত, না। তেল ওয়াশ অফ করার জন্য শ্যাম্পুই লাগবে। যেদিন তেল দিবেন সেদিন চুল ওয়াশ করার জন্য কো ওয়াশ স্যুটেবল না।

সপ্তাহে কতদিন কো ওয়াশ করতে হবে?

– CGM follower দের জন্য Ideally সপ্তাহে ২ দিনের বেশি না। কিন্তু শুরুর দিকে অনেকেরই এত অল্প চুল ধোয়ার সাথে খাপ খাওয়াতে একটু সময় লাগে। সেক্ষেত্রে নিজের পছন্দমত রুটিন সেট করে নিতে হবে। সপ্তাহে ৩/৪ দিনও যদি কো ওয়াশ করেন, এটা কমিয়ে আনার চেষ্টা করতে হবে।

যাঁরা CGM follow করছেন না কিন্তু এমনি কো ওয়াশ করতে চান, তাঁদের ক্ষেত্রে কোন দিনের বাধ্য বাধকতা নেই। প্রয়োজন এবং সুবিধা অনুযায়ী প্রতিদিনও করতে পারেন।

কো ওয়াশ করার পরে কি আবার কন্ডিশনার ব্যবহার করতে হবে?

– নির্ভর করে আপনার চুলের ধরণটা কেমন। যদি নর্মাল থেকে অল্প অয়েলির দিকে হয় তাহলে অনেকের কো ওয়াশ করাই যথেষ্ট হয়। কিন্তু কো ওয়াশ করার পরেও যদি চুল যথেষ্ট সফট হয়েছে মনে না হয় তাহলে অবশ্যই কন্ডিশনার ব্যবহার করতে হবে। কোঁকড়া চুল সাধারনত বেশি শুষ্কই হয় এবং সেক্ষেত্রে কো ওয়াশের পরেও একটি ময়েশ্চারাইজিং কন্ডিশনার সবসময়ই ব্যবহার করা ভাল।

আমাকে কিছু প্রোডাক্টের নাম সাজেস্ট করতে পারেন যেগুলো দিয়ে কো ওয়াশ করা যাবে?

অবশ্যই! চেক করবেন এই লিংকে

লিখেছেন-

Sanjida-CGM

Dr. Sanjida Alam

MBBS, MPH (NIPSOM), PGT (Surgery)

Managing partner, Co-founder, Asteria